আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা?

আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা?

এখন পর্যন্ত, আন্তর্জাতিক ফুটবলে  টানা ২৯ ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে আর্জেন্টিনা। শেষবার, ২০১৯ সালে হারের মুখ দেখেছিল আর্জেন্টিনা। ২০২১ সালে লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্যের মুকুটও পড়ে তারা। তবে, আন্তর্জাতিক ফুটবলে আর্জেন্টিনার হয়ে দারুণ ফর্মে থাকলেও ক্লাব ফুটবলে মোটেও ভালো সময় কাটাচ্ছেন না আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

 

আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা?
অনুশীলনে আর্জেন্টিনা
লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ম্যাচে মাঠে নামছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। এবার, আলবিসেলেস্তেদের প্রতিপক্ষ ভেনেজুয়েলা। কাতার বিশ্বকাপ নিশ্চিত হওয়ায় ম্যাচটা কেবল নিয়মরক্ষার হলেও বিশ্বকাপ প্রস্তুতি হিসেবে এ ম্যাচের মাধ্যমে নিজেদের বেঞ্চের শক্তি আরেকবার পরখ করে নিতে চাইবে লিওনেল স্কালোনি শিষ্যরা। যদিও নিষেধাজ্ঞার জন্য এই ম্যাচে খেলতে পারবেন না চার আর্জেন্টাইন ফুটবলার। লা বম্বনেরা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় আগামীকাল শনিবার ভোর সাড়ে ৫টায়।
ব্রাজিলের পর দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে দ্বিতীয় দল হিসেবে আর্জেন্টিনা কাতার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে গেল নভেম্বরে। এখনো বাকি আছে তিন ম্যাচ। যেগুলোকে নিয়মরক্ষার বললেও হয়তো ভুল হবে না। ১৫ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে লিওনেল স্কালোনির দল। যদিও তাদের সামনে সুযোগ আছে ব্রাজিলকে টপকে শীর্ষে থেকে বাছাইপর্ব শেষ করার।

[ আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা? ]

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে আর্জেন্টিনা সবশেষ হেরেছিল ৫ বছর আগে। ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে সবশেষ দেখাতেও আছে ৩-১ ব্যবধানের সহজ জয়। রেকর্ড-পরিসংখ্যান সবই আর্জেন্টিনার পক্ষে। তারপরও আলবিসেলেস্তে কোচ স্কালোনি স্বস্তিতে আছেন তা বলা যাবে না।

কোভিড প্রটোকল ভেঙে ব্রাজিলে প্রবেশ করার দায়ে দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞায় আছেন মার্তিনেজ, রোমেরো, বুয়েন্দিয়া ও লো সেলসো। ইনজুরি ও কোভিডের জন্য ছিটকে গেছেন আরও ৫ জন। এই ম্যাচে মোট ৯ খেলোয়াড়কে পাবেন না স্কালোনি।

তবে ফিরছেন লিওনেল মেসি। নতুন বছরের শুরুতে কোভিড আক্রান্ত হওয়ায় মেসি মিস করেছিলেন চিলি ও কলম্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ। একাদশে এলএম টেনের উপস্থিতি কিছুটা হলেও আত্মবিশ্বাস বাড়াবে পুরো দলের। মেসিকে পেয়ে খুশি কোচ স্কালোনিও।

আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা?
অনুশীলনে মেসি

আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেন,” মেসির ক্লাব সম্প্রতি ভালো করতে পারছে না, তবে এটা নিয়ে আমিও চিন্তিত না। কারণ জাতীয় দলের হয়ে সে সবসময় পারফর্ম করতে মুখিয়ে থাকে। এবারো সে ভালো করবে বলে আমার বিশ্বাস। আমাদের বিশ্বকাপ নিশ্চিত হলেও আমরা জানি না মূল আসরে কারা আমাদের প্রতিপক্ষ হবে। তাই এখন থেকেই প্রস্তুতি শুরু করতে চাই।”

আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা?
আর্জেন্টিনা ম্যানেজার লিওনেল স্কালোনি

পিএসজিতে লিওনেল মেসির ম্লান ফর্ম নিয়ে ফ্রান্সের কিংবদন্তী প্লাতিনি বলেন,”

সেও (মেসি) তাদের (ভক্তদের) অনুভূতিটা বোঝে, কিন্তু এটি কষ্ট দেয়। আমাকেও পিএসজির মাঠে (জাতীয় দলের হয়ে খেলা ও কোচ থাকাকালীন সময়ে) দুয়ো দেওয়া হয়েছিল।(ভক্তদের) দুয়ো দেওয়ার অধিকার আছে। ওরাই রাজা। আমি এটা করতাম না। সবারই দুয়ো দেওয়ার অধিকার আছে। লিও (মেসি) প্যারিসকে আনন্দে ভাসাতে এসেছিল। হয়তো অন্য দলগুলোও তাকে চেয়েছিল। এটা খুব কঠিন।”

এছাড়াও, ১৯৭৮ বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য মারিও ক্যাম্পেস বলেন, ” স্ক্যালোনি তার হাতে যারা ছিল, তাদের সবাইকে বাদ দিয়েছে। শুধুমাত্র মেসি, ডি মারিয়া, আর ওটামেন্ডি ছাড়া। সে দলে তারুণ্য নিয়ে এসেছে, নতুনত্ব এনেছে। যদি সেমিফাইনালিস্ট কারা হবে এ কথা জিজ্ঞেস করা হয় আমাকে, তাহলে আমি বলব আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, ফ্রান্স, জার্মানি।মেসি সব সময় মেসিই থাকবে, তার কখনোই মনোবলের ঘাটতি হবে না। সে খুব প্রতিযোগী এবং আর্জেন্টিনা দলের সাথে তা আরও বেড়ে যায়।”

কেম্পেস মনে করেন, বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যাওয়াটা মেসির জন্য মোটেও ভালো হয় নি। কেম্পেস বলেন, “আমার মতে সে পিএসজিতে গিয়ে ভালো করেনি। সে দুঃখী, অনেকটা বাধ্য হয়েই হাসে। সে প্রচণ্ড স্নায়ুচাপে ভুগছে, কারণ সে সেখানে মোটেও স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছে না। কারণ সে বিশ্বসেরা খেলোয়াড়, তাকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতাতে, কিন্তু সে শেষ ষোলোর গণ্ডিই পার করতে পারেনি।”

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরেই নিন্দুকদের চোখের বালি হয়ে যান মেসি। মেসি একা নন, ব্রাজিলিয়ান সুপাস্টার নেইমারকেও একই পথের পথিক হতে হয়েছে। খোদ পিএসজির দর্শকদের দুয়ো শুনতে হয়েছে তাদের। এই খারাপ সময় থেকে বেরিয়ে ভেনেজুয়েলা ম্যাচে কেমন করেন মেসি, সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।

শুরুর একাদশে থাকবেন মেসি, তার সঙ্গে লাওতারো মার্টিনেজকে দেখা যাবে না। করোনা পজিটিভ হওয়ায় ভেনেজুয়েলা ম্যাচে ডাগ আউটে থাকছেন না তিনি।

আবারো অপরাজিত থাকবে আর্জেন্টিনা?
আর্জেন্টিনার তরুণ তুর্কি লুকা রোমেরো
ভবিষ্যতের কথা ভেবে স্কালোনি ভিন্ন পরিকল্পনায় এগোচ্ছেন। তার নির্দেশেই সোমবার দলে ডাকা হয়েছে ৬ তরুণ ফুটবলার ফ্রাঙ্কো, ভ্যালেন্টিন, গারাঞ্চো, নিকোলাস, গেরালনিক ও লুক রোমেরোকে। গুঞ্জন আছে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে সুযোগ দিতে পারেন অপেক্ষাকৃত তরুণ কিছু ফুটবলারদের।

মন্তব্য করুন