ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন

ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন !!!

মার্চ মাস, বাংলাদেশের ইতিহাসে এক বিশেষ তাৎপর্য বহন করে। এই মার্চ মাসেই , ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করে। এছাড়াও, ১৯৭১ সালের এ মার্চ মাসের ৭ তারিখেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ার নির্দেশ পায় বাংলার আপামর স্বাধীনতাকামি জনতা। এ ঐতিহাসিক মার্চ মাসেই এসেছে  দেশের ক্রিকেটের বেশ কিছু স্মরণীয় জয় যা দেশের ক্রিকেটকে নিয়ে গেছে এক অনন্য উচ্চতায়।

[ ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন !!! ]

১০ মার্চ, ২০০৪ঃ ২০০৪ সালের ৪ই মার্চ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে  বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এক ঐতিহাসিক জয় এসেছিল ,যা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের জয়ের খরা কাটিয়ে এনে দিয়েছিল এক পসলা বৃষ্টি। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ড এবং পাকিস্তানকে হারানোর পর আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেটে টানা ২৩ ম্যাচ হেরে পরপর সবথেকে বেশি হারের এক লজ্জার রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ। ২০০৪ সালের ৪ই মার্চে জিম্বাবুয়েকে ৮ রানে হারিয়ে দীর্ঘ ৫ বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জয় পায় বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
দীর্ঘ ৫ বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের জয়

১৭-২৫ মার্চ, ২০০৬ঃ ২০০৬ সালের ১৭ থেকে ২৫ মার্চ, কেনিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ খেলে বাংলাদেশ। এ সিরিজে তৎকালীন ওয়ার্ল্ড কাপ সেমিফাইনালিস্ট কেনিয়াকে ৩-০ তে হোয়াইটওয়াশ করে বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
কেনিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সিরিজ জয়

১৭ মার্চ, ২০০৭ঃ ২০০৭ সালের ১৭ই মার্চ ভারতের বিপক্ষ ওয়ানডে বিশ্বকাপে এক স্মরণীয় জয় পায় বাংলাদেশ। এ জয়টি প্রত্যেক বাংলাদেশী ক্রিকেট প্রেমীর হৃদয়ে যেন চিরতরে গেথে থাকবে। এ ম্যাচটিতে মাশরাফি, রাজ্জাক, রফিকদের বোলিং নৈপুণ্য কিংবা তরুণ সাকিব, তামিম এবং মুশফিকের ব্যাটিং বীরত্ব , এ সব কিছুই যেন বাংলাদেশি ক্রিকেট প্রেমীদের মনে দিয়েছে এক মধুময় মলিনতা। সে ম্যাচে, শক্তিশালী ভারতকে ৫ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ।

 

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক জয়ের সে মুহুর্ত

২৫ মার্চ, ২০০৭ঃ ২০০৭ সালের ২৫শে  মার্চ , ওয়ানডে বিশ্বকাপে বারমুডাকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপের সুপার এইটে ওঠে বাংলাদেশ। অবশ্য বৃষ্টিবিঘ্নিত সে ম্যাচ মাঠে গড়ানো নিয়ে ছিলো শঙ্কা। তবে, শঙ্কা কাটিয়ে মাঠে গড়ায় ম্যাচটি। উভয় দলের জন্য ২১ ওভারের ম্যাচ খেলানোর সিদ্ধান্ত নেন ম্যাচ অফিশিয়ালরা। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২১ ওভার শেষে ৯৪ রান করে বারমুডা।

২৫ মার্চ, ২০০৭ঃ ২০০৭ সালের ২৫শে  মার্চ , ওয়ানডে বিশ্বকাপে বারমুডাকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপের সুপার এইটে ওঠে বাংলাদেশ। অবশ্য বৃষ্টিবিঘ্নিত সে ম্যাচ মাঠে গড়ানো নিয়ে ছিলো শঙ্কা। তবে, শঙ্কা কাটিয়ে মাঠে গড়ায় ম্যাচটি। উভয় দলের জন্য ২১ ওভারের ম্যাচ খেলানোর সিদ্ধান্ত নেন ম্যাচ অফিশিয়ালরা। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২১ ওভার শেষে ৯৪ রান করে বারমুডা।
বারমুডার বিপক্ষে ২০০৭ বিশ্বকাপে টসের চিত্র

৯৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দলীয় ৩৭ রানেই ৩ উইকেট হারানোর পর মোহাম্মদ আশরাফুল এবং সাকিব আল হাসানের ব্যাটিং দৃঢ়তায় ৭ উইকেটের জয় নিয়ে সুপার এইট নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

১১ মার্চ, ২০১১ঃ ২০১১ সালের ১১ই মার্চ দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত প্রথম বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারায় বাংলাদেশ। স্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ২ উইকেটে হারায় তারা। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে, বাংলাদেশি বোলারদের অসাধারণ বোলিং প্রদর্শনে ২২৫ রানে শেষ হয় ইংল্যান্ডের ইনিংস। এরপর, ইমরুল কায়েসের অসাধারণ ৬০ রানের ইনিংস এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও শফিউল ইসলামের অবিশ্বাস্য ফিনিশিংয়ে ২ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জয়ের চিত্র

 

১৬ মার্চ, ২০১২ঃ ২০১২ সালের ১৬ই মার্চ ভারতের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে এক ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ। সে ম্যাচে, বাংলাদেশের বিপক্ষে সেঞ্চুরি কর নিজের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটীয় ক্যারিয়ারের ১০০তম সেঞ্চুরি করেন শচীন টেন্ডুলকার। তবে, শচীনের সেই ঐতিহাসিক সেঞ্চুরি উদযাপনে জল ঢলে দেয় বাংলাদেশ। সে ম্যাচে, ৫ উইকেটের এক ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন

ভারতের বিপক্ষে ২০১২ এশিয়া কাপ জয়ের পর বাংলাদেশ

২০ মার্চ, ২০১২ঃ ২০১২ সালের ২০শে মার্চ শক্তিশালী শ্রীলঙ্কাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সে ম্যাচটি ছিলো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের তৃতীয় জয়।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
২০১২ এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ

২৮ মার্চ, ২০১৩ঃ ২০১৩ সালের ২৮শে মার্চ শ্রীলঙ্কার মাটিতে প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কোনো ওয়ানডে ম্যাচ জেতে বাংলাদেশ। সে ম্যাচটি বাংলাদেশ জেতে ৩ উইকেটে। যার কারণে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সে সিরিজ ড্র করতে সমর্থ হয় বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ ড্রয়ের পর বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক

৯ মার্চ, ২০১৫ঃ ২০১৫ সালের ৯ই মার্চ অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়লাভ করে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সেঞ্চুরিতে সে ম্যাচটি বাংলাদেশ ১৫ রানে জয়লাভ করে।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
২০১৫ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের পর বাংলাদেশ

২ মার্চ, ২০১৬ঃ ২০১৬ সালের ২রা মার্চ , ঘরের মাটিতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ। এ জয়ে, দ্বিতীয়বারের মতো এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
২০১৬ এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের পর বাংলাদেশ

১৫ মার্চ, ২০১৭ঃ ২০১৭ সালের ১৫ই মার্চ নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে স্মরণীয় এবং ঐতিহাসিক জয় পায় বাংলাদেশ। সেদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজেদের ১০০তম ম্যাচ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজদের ১০০তম টেস্ট জয়ের পর বাংলাদেশ

১০ই মার্চ , ২০১৮ঃ ২০১৮ সালের ১০ই মার্চ, শ্রীলঙ্কার মাটিতে অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয় পায় বাংলাদেশ। সে ম্যাচে, শ্রীলঙ্কার ২১৪ রানের জবাবে , ২ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌছায় বাংলাদেশ।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
জয়ের পর মুশফিকুর রহীমের উদযাপন

১৬ই মার্চ ,২০১৮ঃ ২০১৮ সালের ১৬ই মার্চ, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিদাহাস ট্রফিতে এক শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ জয় লাভ করে বাংলাদেশ। সে ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২ উইকেটে জিতে নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে ওঠে শ্রীলঙ্কা।

 ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন
জয়ের পর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের উদযাপন

আরও পড়ুন:

আসন্ন নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপে সেরা অলরাউন্ডার [ The best all-rounder in the upcoming Women’s Cricket World Cup ]

“ঐতিহাসিক মার্চ এবং দেশের ক্রিকেটের সব ঐতিহাসিক অর্জন”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন