ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে হবে আর্জেন্টিনা এবং ইতালির মহারণ

বিশ্বের বিভিন্ন ঐতিহাসিক ফুটবল স্টেডিয়ামের মধ্যে অন্যতম স্টেডিয়াম হলো লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম। এ ওয়েম্বলি স্টেডীয়ামেই হবে ইউরোপ সেরা এবং লাতিন আমেরিকা সেরার লড়াই। ১ জুন এ ওয়ে-ম্বলি স্টেডিয়ামে হবে ইউরো চ্যাম্পিয়ন ইতালি এবং কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার মধ্যকার ম্যাচটি।

ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে হবে আর্জেন্টিনা এবং ইতালির মহারণ
১৯৬৬ বিশ্বকাপ ট্রফি হাতে ইংল্যান্ড

ইউরোপের স্টেডিয়ামগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টেডিয়াম হচ্ছে এ ওয়ে-ম্বলি স্টেডিয়াম। প্রায় ৯০,০০০ আসন বিশিষ্ট এ  স্টেডিয়ামের প্রত্যকটি আসনই ঢাকার উপযুক্ত। অর্থাৎ, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া কিংবা ঝড়, সকল অবস্থাতেই  এ  স্টেডিয়ামের ম্যাচ পরিচালনা করা সম্ভব।

২০০৭ সালে এফ এ কাপ ফাইনালে আয়োজনের মাধ্যমে এ স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করা হয়। এ স্টেডিয়াম উদ্বোধনের পর থেকে এটিকে “নিউ ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম” হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। ২০০৩ সালে সম্প্রসারনের উদ্দেশ্যে পুরাতন ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম ভেঙ্গে এ নতুন  স্টেডিয়ামের কাজ শুরু করা হয়।এই ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামকে ফুটবলের জন্মভূমি বলা হয় ভৌগলিক কারণে।

পুরাতন ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামটি নির্মাণে প্রায় ৪৬ মিলিয়ন ডলার সমমূল্যের অর্থ খরচ হয়েছিল। স্টেডিয়ামটি সর্বপ্রথম ব্রিটিশ সাম্রাজ্য প্রদর্শনী স্টেডিয়াম হিসেবে তৈরি করা হয়েছিল। পুরাতন ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম সর্বপ্রথম ১৯২৩ সালের ২২ এপ্রিল জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছিল।

[ ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে হবে আর্জেন্টিনা এবং ইতালির মহারণ ]

বিশ্বকাপের অষ্টম আসর বসেছিল ইংল্যান্ডে। ১১ থেকে ৩০ জুলাইয়ের এই আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় স্বাগতিকরা। উত্তেজনাকর ফাইনালে পশ্চিম জার্মানিকে ৪-২ গোলে হারায় ইংলিশরা। তৃতীয় দল হিসেবে তারা জেতে ঘরের মাঠের বিশ্বকাপ।

ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ দিয়ে প্রথমবার ফুটবল মহাযজ্ঞ নেমে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল পর্তুগাল। ইউসেবিও’র জাদুকরী পারফরম্যান্সে তৃতীয় হয়ে শেষ করে তারা ১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপ। এই বিশ্বকাপ বয়কট করেছিল আফ্রিকানরা। এরপরও বাছাই পর্বে অংশ নিয়েছিল রেকর্ড ৭০ দেশ। যেখানে ইউরোপের ১০ দলের সঙ্গে লাতিন আমেরিকার ৪, এশিয়ার ১, উত্তর ও মধ্য আমেরিকার থেকে অংশ নেয় একটি দল।

ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা এক ফাইনাল মঞ্চায়িত হয় এই বিশ্বকাপে। শেষ বাঁশি বাজার আগমুহূর্তে গোল হজম করে ইংলিশদের বিশ্বকাপ স্বপ্নে ধাক্কা লাগলেও অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ফাইনালে জিওফ হার্স্টের হ্যাটট্রিকে স্বাগতিকরাই মাতে বিশ্ব জয়ের আনন্দে। সেই ১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে।

২০১১ এবং ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালসহ বহু গুরুত্বপুর্ণ টুর্নামেন্টের ফাইনালও মঞ্চায়িত হয়েছিল ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে। এছাড়াও, ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বেশকিছু দিন ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ক্লাব, টটেনহাম হটস্পার এ স্টেডিয়ামকে নিজেদের হোম ভেন্যু হিসেবে ব্যবহার করেছে। এবার, এ ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামেই মঞ্চায়িত হবে আরেক ঐতিহাসিক ম্যাচ যেখানে, ২০২১ ইউরো এবং কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন, ইতালি এবং আর্জেন্টিনা পরস্পর  মুখোমুখি হবে।

শ্বাসরুদ্ধকর টাইব্রেকারেই গড়ায় এবারের ইউরোর ফাইনাল। যেখানে পেনাল্টি শুট-আউটে ইংল্যান্ডকে ৩-২ গোলে হারিয়ে ইউরো ২০২০ চ্যাম্পিয়ন হয় ইতালি। কেঁদেছিল ইংল্যান্ড, ৫৩ বছর পর আবারও ইউরোর শিরোপা পেয়ে হাসল আজ্জুরিরা।

ফাইনালের সে টাইব্রেকারে ইতালির পক্ষে গোল করেন বেরারদি, গোল করেন ইংল্যান্ডের হ্যারি কেন, কিন্তু বেলোত্তির শট ঠেকিয়ে দেন পিকফোর্ড, তবে ইংল্যান্ডের হ্যারি মাগুইর শট ঠেকাতে পারেননি দেন্নারুমা। ফলে স্কোরলাইন হয় ১-২। এরপর গোল করেন ইতালির বোনুচ্চি কিন্তু  ইংল্যান্ডের রাশফোর্ডের শট পোস্টে প্রতিহত হয়। স্কোর ফের সমতায় ২-২।

এবার গোল করেন ইতালির বার্নারদেসচি। কিন্ত ইংল্যান্ডের স্যাঞ্চোর শট বাঁচিয়ে দেন দোন্নারুমা। স্কোরলাইন হয় ৩-২।

জোরগিনহোর শট বাঁচিয়ে দেন পিকফোর্ড। কিন্তু তাতে কাজ হয়নি। ইংল্যান্ডের সাকার শটও বাঁচিয়ে দেন দোন্নারুমা। ফলে ৩-২ স্কোরলাইনে জয় পায় ইতালি। যার ফলে, ৫৩ বছর পর আবারও ইউরোর শিরোপা পেয়ে হাসল ইতালি।

ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে হবে আর্জেন্টিনা এবং ইতালির মহারণ
ইউরো কাপ জেতার পর ইতালির উদযাপন

এহাড়াও, ১৯৩৭ সালের পর কোপা আমেরিকার ফাইনালে ব্রাজিলকে হারায় আর্জেন্টিনা। আগের কয়েক ম্যাচে বদলি নেমে আলো ছড়ানো দি মারিয়া শুরুর একাদশে সুযোগ পেয়েই নায়ক। তার গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর রক্ষণ জমাট করে ব্যবধান ধরে রাখে আর্জেন্টিনা, এই টুর্নামেন্টের শুরু থেকে যে কৌশলে খেলে সফল দলটি।

২৮ বছর পর প্রথম কোনো বড় টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতে আর্জেন্টিনা। সবশেষ ১৯৯৩ সালে কোপা আমেরিকার শিরোপাই জিতেছিল তারা। এবার জিতে স্পর্শ করল টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ১৫ শিরোপা জয়ের রেকর্ডধারী উরুগুয়েকে।

ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে হবে আর্জেন্টিনা এবং ইতালির মহারণ
কোপা আমেরিকা জেতার পর আর্জেন্টিনার উদযাপন

প্থমবারের মতো দেশের মাটিতে কোপা আমেরিকার শিরোপা জিততে ব্যর্থ হয় ব্রাজিল; আগের পাঁচ আসরেই শিরোপা জিতেছিল তারা। মহাদেশ সেরা টুর্নামেন্টে দেশের মাটিতে তারা হারল ১৯৭৫ সালের পর এই প্রথম।

যার কারণে, এ ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য আর্জেন্টিনা এবং ইতালির লড়াই নিতে পারে এক আলাদা রং।

আরও পড়ুন:

আবারো মেসি-রোনালদো বিহীন একটি নিষ্প্রাণ এল ক্লাসিকো

ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম

মন্তব্য করুন