বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল

বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল :

বিপিএল ২০২২ এর পর্দা উঠলো চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স বনাম ফরচুন বরিশালের মধ্যকার ম্যাচের মধ্য দিয়ে।ম্যাচের প্রথম বলেই অফস্পিনার নাইম হাসানের বলে ছক্কা হাকান চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ওপেনার কেন্নার লুইস। একই ওভারের তৃতীয় বলে অফস্পিনার নাইম হাসানের করা ফুল লেন্থের বল আবারো বাউন্ডারির বাহিরে পাঠানোর চেষ্টায় লং অন অঞ্চলে নাজমুল হাসান শান্তর হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরের ফিরে যান চট্টগ্রাম  চ্যালেঞ্জার্স ওপেনার লুইস।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল

প্রথম ওভারে ১ উইকেট নিয়ে মাত্র ৭ রান দিয়ে একটি সফল ওভারের সমাপ্তি ঘটান নাইম হাসান।এরপরের ওভারেই বল করেতে আসেন ফরচুন বরিশাল অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। এই ওভারে মাত্র ২ রান দিয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ব্যাটারদের আরো চাপে ফেলেন তিনি।

[ বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল ]

দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই অফস্পিনার নাইম হাসানের বলে রিভার্স সুইপ করে ব্যাকওার্ড পয়েন্টে একটি চার হাকান চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ব্যাটার আফিফ হোসেন। একই ওভারের তৃতীয় বলে সুইপ করে ব্যাকওার্ড স্কয়ার লেগ অঞ্চল দিয়ে নিইজদের ইনিংসের দ্বিতীয় ছক্কা হাকান চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ওপেনার উইল জ্যাকস।

main 5 বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল

তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে আলজারি জোসেফের করা লেগ স্ট্যাম্পের বাহিরের বল ফ্লিক করতে গিয়ে ইরফান শুক্কুরের হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যাক্তিগত ৬ রানে সাজঘরে ফিরে যান চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ব্যাটার আফিফ হোসেন।

তৃতীয় ওভারের চতুর্থ এবং পঞ্চম বলে পরপর দুইটি বাউন্ডারি হাকান চট্টগ্রাম ব্যাটার সাব্বির রহমান। তবে চতুর্থ ওভারের শেষ বলে সাকিব আল হাসানের বল অ্যাক্রোস দ্য লাইন খেলতে গিয়ে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে ৮ বলে ৮ রান করে আউট হন সাব্বির। ইনিংসের ৫ ওভারের মধ্যেই ৩৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে চট্টগ্রাম।

অষ্টম ওভারের প্রথম বলেই জ্যাক লিনটটের ইয়র্কার লেন্থের বলে লেগ বিফোর উইকেট হয়ে সাজঘরের ফিরে যান ওপেনার উইল জ্যাকস। দলীয় ৪২ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে চট্টগ্রাম।

এরপর ধীরস্থির ব্যাটিংয়ের মাধ্যমে দলকে সাময়িক বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ এবং অলরাউন্ডার শামিম হোসেন পাটোয়ারি। ইনিংসের দশম ওভারের তৃতীয় বলে চায়নাম্যান জ্যাক লিনটটকে লেট কাট করে ৪ মারলে দীর্ঘ ৩৯ বল পর বাউন্ডারির দেখা পায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

main 4 বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল

তবে একাদশ ওভারের তৃতীয় বলে ডাউন দ্যা ট্র্যাকে এসে একটি ওভার বাউন্ডারি হাকানোর চেষ্টায় নাইম হাসানের বলে জ্যাক লিনটটেরর বলে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মেহেদী হাসান মিরাজ।

উইকেটে বেশিক্ষণ থেতো হতে পারেননি আরেক ব্যাটার শামীম হোসেন। ত্রয়োদশ ওভারের শেষ বলে আলজারি জোসেফের বলে আউট হন তিনি। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ব্যাটারদের আশা যাওয়ার মিছিলে দলের হাল ধরেন অলরাউন্ডার বেনী হাওয়েল।তার করা ২০ বলে ৪১ রানের মহাগুরুত্বপূর্ন এক ক্যামিও ইনিংসে ১২৫ রানের লড়াকু পুজি পায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।

১২৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোচট খায় বরিশাল। দলীয় ৩ রানেই নাজমুল হাসান শান্তর উইকেট হারায় তারা।শুরু থেকেই বরিশালের ব্যাটারদের চাপে রাখেন চট্টগ্রামের দুই স্পিনার নাসুম আহমেদ এবং মেহেদি হাসান মিরাজ। ইনিংসের প্রথম ৪ ওভারের কোনো বাউন্ডারির দেখা পায়নি তারা।main 8 বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল

নাজমুল হাসান শান্ত আউট হওয়ার পর উইকেটে বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেননি অধিনায়ক সাকিবও। দলীয় ২৮ রানের মাথায় প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। শান্ত এবং সাকিব দুজনেই মিরাজের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন।

পার্টনারশিপটি বড় হওয়ার আগেই একাদশ ওভারের প্রথম বলে মুকিদুল ইসলামের বলে কেনার লুইসের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তিনি। হৃদয় এবং সৈকত দুইজনে মিলে দ্বিতীয় উইকেটে যোগ করেন ৩৪ রান। তৃতীয় উইকেটের পতনেত পরই হাত খুলেন ওপেনার সৈকত আলী। একের পর এক বাউন্ডারি এবং ওভার বাউন্ডারি হাকিয়ে দলকে নিয়ে যেতে থাকেন জয়ের দ্বারপ্রান্তে।

333515.4 বিপিএল ২০২২ঃ চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৪ উইকেটে হারালো ফরচুন বরিশাল

সৈকতের পাশাপাশি দ্রুত গতিতে রান তুলতে চেষ্টা করতে থাকেন উইকেটের আরেকপ্রান্তে থাকা ব্যাটার ইরফান শুক্কুর। কিন্ত, ইনিংসের চতুর্দশ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে ফরচুন  বরিশাল। একটি ৪ এবং দুইটি ৬ এর মারে ৩৫ বলে ৩৯ রানের এক দায়িত্বশীল ইনিংস খেলেন সৈকত আলী। দলীয় ৯২ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে হারের শংকা জেকে বসে বরিশাল শিবিরে।

ইনিংসের ষোড়শ ওভারের পঞ্চম এবং ষষ্ঠ বলে একটি ৪ এবং একটি ৬ হাকিয়ে জয়টা শুধুমাত্র সময়ের ব্যাপার করে তোলেন বরিশাল অলরাউন্ডার জিয়াউর রহমান।এরপর আর কোনো অঘটন ঘটতে দেননি ক্রিজে থাকা দুই ব্যাটার জিয়া এবং ব্রাভো।

অষ্টাদশ ওভারের চতুর্থ বলে বেনি হাওলের করা অফ স্টাম্পের বাহিরের বল জিয়াউর রহমান সীমানার বাহিরে পাঠালে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় ফরচুন বরিশাল। ৪ ওভারে ১৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেয়ায় ম্যাচ সেরা হন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ।

আরও দেখুন:

ব্রেন্ডন টেইলর : বর্ণাঢ্য ক্রিকেটীয় ক্যারিয়ারে এক প্রশ্নবাচক চিহ্ন

মন্তব্য করুন