রাফায়েল নাদাল [ Rafael Nadal ] দ্য কিং অব ক্লে

স্প্যানিশ বংশদ্ভূত রাফায়েল নাদাল [ Rafael Nadal ] কে ক্লে কোর্টের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে অভিহিত করা হয়। যার কারণে নাদালের ক্যারিয়ারে জেতা গ্র‍্যান্ড স্ল্যামগুলোর মধ্যে ১৩ টিই এসেছে ফেঞ্চ ওপেন জেতার মধ্য দিয়ে। এছাড়াও, নিজের ৯০টি এটিপি টাইটেলের মধ্যে নাদাল মোট ৬২ টি টাইটেল জিতেছেন ক্লে কোর্টেই।

বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে অন্যতম রাফায়েল নাদালকে অনেকে ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড় বলেও আখ্যায়িত করে থাকেন। কারণ, নাদাল টেনিস ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী গ্র‍্যান্ড স্ল্যাম জিতেছেন। নাদাল দীর্ঘ ২০৯ সপ্তাহ এটিপি র‍্যাংকিংয়ে প্রথম অবস্থানে ছিলেন। এছাড়া, ক্লে কোর্টে নাদাল দীর্ঘ ৮১ টি ম্যাচ অপরাজিত ছিলেন।

রাফায়েল নাদালঃ দ্য কিং অব ক্লে
রাফায়েল নাদাল

রাফায়েল নাদাল [ Rafael Nadal ] স্পেনের মায়োর্কা শহরে জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮৬ সালের ৩রা জুন।নাদাল ছোটবেলা থেকেই ফুটবল এবং টেনিস উভয় খেলায় পারদর্শী ছিলেন। তিনি বার্সেলোনা স্ট্রাইকার রোনালদিনহোর অনেক বড় ফ্যান ছিলেন। যার কারণে টেনিসের পাশাপাশি তিনি ফুটবল খেলাও চালিয়ে যাচ্ছিলেন।

[ রাফায়েল নাদাল [ Rafael Nadal ] : দ্য কিং অব ক্লে ]

নাদাল ৮ বছর এবং ১২ বছর বয়সেই বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলোতে অংশগ্রহণ করতে থাকেন এবং একের পর এক জয়ে নিজের ঝুলি সমৃদ্ধ করতে থাকেন।
২০০১ এর মে মাসে তিনি সাবেক গ্র‍্যান্ড স্ল্যাম চ্যাম্পিয়ন প্যাট ক্যাশকে ক্লে কোর্টের একটি প্রীতি ম্যাচে হারিয়ে চমক দেখিয়ে দেন।

২০০৫ সালে, নাদাল তার ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র‍্যান্ড স্ল্যাম জেতেন। সে বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে বাদ পড়লেও ক্লে কোর্ট বিশিষ্ট ফ্রেঞ্চ ওপেন চ্যাম্পিয়ন হন তিনি।

২০০৬ সালে, ইঞ্জুরির কারণে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলতে পারেননি নাদাল। কিন্তু, একই বছরে তিনি ততকালীন নম্বর ১ রজার ফেদেরারকে হারিয়ে দুবাই ডিউটি ফ্রি ম্যান্স ওপেন চ্যাম্পিয়ন হন।

রাফায়েল নাদাল
রাফায়েল নাদাল

একই ইউরোপীয়ান ক্লে কোর্টে হওয়া সব টুর্নামেন্ট জেতেন নাদাল। এরপর, তিনি সে বছর ফেঞ্চ ওপেনে রজার ফেদেরারকে ফাইনালে হারান।যা তার টেনিস ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় গ্র‍্যান্ড স্ল্যাম।

২০০৭ সালে, অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে নাদাল বিদায় হন।কিন্তু, একই বছর আবারো ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে রজার ফেদেরারকে হারিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা নিজের নামে করেন নাদাল।একই বছর, একটি ক্লে কোর্টে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে আবারো সুইস তারকা রজার ফেদেরারকে হারান তিনি।

২০০৮ সালে, নাদাল প্রথম বরের মতো টেনিস র‍্যাংকিংয়ে প্রথম স্থান অর্জন করে। একই বছরে বেইজিং অলিম্পিকে তিনি স্বর্ণপদক জয় করেন।

২০০৯ সালে, রাফায়েল নাদাল টেনিস ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জেতেন এবং একই বছরে তিনি ডেভিস কাপও জেতেন।

২০১০ সালে, রাফায়েল নাদাল টানা চতুর্থবারের মতো ফ্রেঞ্চ ওপেন শিরোপা জেতেন। ফ্রেঞ্চ ওপেনের পাশাপাশি তিনি ইউএস ওপেন এবং উইম্বলডন টেনিস জেতেন।

রাফায়েল নাদাল
রাফায়েল নাদাল

২০১১ এর শুরুতে নাদাল, মুবাদালা ওয়ার্ল্ড টেনিস চ্যাম্পিয়নশিপ জেতেন যেটির ফাইনালে তার প্রতিপক্ষ ছিলো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রজার ফেদেরার। একই বছরে, তিনি তার ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ বার্সেলোনা ওপেনের টাইটেল জেতেন।

কিন্তু, এরপর তিনি রোম মাস্টার্স এবং মাদ্রিদ ওপেনের ফাইনাল হারেন নোভাক জোকোভিচের কাছে।তবে, একই বছর ফ্রেঞ্চ ওপেনে আবারো রজার ফেদেরারকে হারিয়ে ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপ জিতে তিনি এটিপি র‍্যাংকিংয়ে তার প্রথম অবস্থান ধরে রাখেন।

২০১২ সালে, রাফায়েল নাদাল মাত্র একটি টেনিস টুর্নামেন্ট চ্যাম্পিয়ন হয়, যেটি ছিলো ফ্রেঞ্চ ওপেন। ফ্রেঞ্চ ওপেন ছাড়া সে বছর উল্লেখযোগ্য আর কোনো ট্রফি জেতেননি নাদাল। যার কারণে টেনিস র‍্যাংকিং থেকে শীর্ষস্থান হারান নাদাল।

২০১৩ সালে, আবারো এটিপি টেনিস র‍্যাংকিংয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেন রাফায়েল নাদাল। এই বছর তিনি ইউএস ওপেন এবং ফ্রেঞ্চ ওপেন জেতেন।

রাফায়েল নাদাল
রাফায়েল নাদাল

২০১৪ সালে, নাদাল বছরের শুরুতে কাতার ওপেনের শিরোপা জেতেন এবং এ বছর তিনি আবারো ফ্রেঞ্চ ওপেন টেনিসের শিরোপা জেতেন। তবে,  এ বছর অস্ট্রেলিয়ানের ওপেনের ফাইনালের মাঝখানে হঠাৎ ইঞ্জুরির কারণে টুর্নামেন্ট হাতছাড়া হয় নাদালের।

২০১৫ সালে, জুয়ান মোনাকোর সাথে তিনি অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ডাবলসের শিরোপা জেতেন। তবে, এ বছর আর কোনো টেনিস শিরোপা জেতেননি নাদাল। যার কারণে,  টেনিস র‍্যাংকিং থেকে প্রতিনিয়ত পেছনে পড়তে থাকেন।

২০১৬ অলিম্পিকে নিজের ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় স্বর্ণপদক জেতেন। ২০১৭ সালে, নাদাল আবারো ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জেতেন এবং একই সাথে তিনি এ বছর ইউএস ওপেনের শিরোপা জেতেন।যার কারণে, ২০১৭ তে তিনি আবারো এটিপি র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষস্থান অর্জন করেন।

২০১৮ থেকে ২০২০ সালে আবারো টানা তিন বছর নাদাল ফ্রেঞ্চ ওপেন জেতেন।সব মিলিয়ে নাদালের টেনিস ক্যারিয়ারের ২১ টি গ্র‍্যান্ড স্ল্যামের মধ্যে ১৩ টি গ্র‍্যান্ড স্ল্যামই আসে ফ্রেঞ্চ ওপেন জেতার মাধ্যমে।

নাদালের সর্বশেষ গ্র‍্যান্ড স্ল্যাম জয় আসে,  এ বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জেতার মাধ্যমে। যা তার ক্যারিয়ারের ২১তম গ্র‍্যান্ড স্ল্যাম এবং ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। ৩৫ বছর বয়সেও যেভাবে আন্তর্জাতিক টেনিসে  প্রাণবন্ত খেলার প্রদর্শন করে যাচ্ছেন, তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে।

আরও পড়ুন:

রাফায়েল নাদাল : দ্য কিং অব ক্লে

মন্তব্য করুন