অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে

অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে !!!

পোর্ট এলিজাবেথে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিন শেষে কিছুটা স্বস্তিতে বাংলাদেশ। এদিন টস ভাগ্য ছিলো না বাংলাদেশের পক্ষে যার কারণে টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। বাংলাদেশ দলে আসে দুটি পরিবর্তন। সাদমান ইসলাম এবং তাসকিন আহমেদের জায়গায় বাংলাদেশ দলে জায়গা পান তামিম ইকবাল এবং তাইজুল ইসলাম।

সেন্ট জর্জেস পার্কে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে টসভাগ্য সহায় হয়নি বাংলাদেশের। সফরকারীদের ফিল্ডিংয়ে পাঠিয়েছেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ডিন এলগার।

খালেদ আহমেদকে দিয়ে বোলিং শুরু করেন মুমিনুল। প্রথম ওভারে প্রোটিয়ারা তোলে মাত্র ১ রান। দ্বিতীয় ওভারেই স্পিন আক্রমণ। মেহেদি হাসান মিরাজের ওভারে আসে ৭ রান।

অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে
ব্যাটিং করছেন এলগার

ডিন এলগার আর সারেল এরউই শুরুটা করেন ভালোই। কিন্তু তৃতীয় ওভারেই এরউই সাজঘরে ফিরতে পারতেন। খালেদ আহমেদের বল সরাসরি আঘাত হানে তার প্যাডে। আবেদন নাকচ করে দেন আম্পায়ার।

খালেদ বলছিলেন, ব্যাটে বল লাগেনি। আউট হওয়ার সম্ভাবনা আছে। কিন্তু মুমিনুল তাতে সাড়া দেননি। বারকয়েক কথা বলে পরে তিনি মত বদল করেন, রিভিউ নেওয়ার জন্য হাত তোলেন। কিন্তু ততক্ষণে নির্ধারিত ১৫ সেকেন্ড সময় শেষ।

ফলে মুমিনুল রিভিউ নিলেও আম্পায়াররা তা আর যাচাই করেননি। পরে রিপ্লেতে দেখা যায়, আউট ছিলেন এরউই। বল হিট করতো তার লেগ স্ট্যাম্পে। ৪ রানে জীবন পেয়ে যান প্রোটিয়া ওপেনার।

[ অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে ]

সারেল এরউই ব্যক্তিগত ৪ রানের মাথায়ই ফিরতে পারতেন। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই উইকেট শিকারি হতেন খালেদ আহমেদ। কিন্তু অধিনায়ক মুমিনুল হকের সিদ্ধান্তহীনতায় সময়মতো রিভিউ নিতে পারেনি বাংলাদেশ।

সেই এরউই অবশেষে ফিরলেন খালেদের শিকার হয়েই। করলেন ২৪ রান। বাংলাদেশ ইনিংসের ১২তম ওভারের শেষ বলে প্রোটিয়া ইনিংসে আঘাত হেনেছেন খালেদ। যে উইকেটে অবদান আছে লিটন দাসের দুর্দান্ত ক্যাচেরও।

খালেদের অফসাইডে বেরিয়ে যাওয়া বলে এরউই ড্রাইভ করেছিলেন, বল ব্যাটে লেগে চলে যায় উইকেটের পেছনে। বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে দারুণ এক ক্যাচ নেন উইকেটরক্ষক লিটন।

বাংলাদেশের বিপক্ষে চলতি সিরিজে যেনো ৬০ থেকে ৭০ রানের গেরোয় আটকে গেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ডিন এলগার। আগের ম্যাচে ৬৭ ও ৬৪ রানের ইনিংস খেলার পর এবার দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে তিনি আউট হলেন ঠিক ৭০ রানে।

Sports Gurukul GOLN Website Logo 01 অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে

পোর্ট এলিজাবেথে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে প্রোটিয়া অধিনায়ককে সাজঘরে পাঠিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তার করা ৩৩তম ওভারে অফস্ট্যাম্পের বাইরের সোজা চলে যাওয়া ডেলিভারিতে কট বিহাইন্ড হয়েছেন এলগার।

দিনের তৃতীয় ওভারে পুড়তে হয়েছিল রিভিউ না নেওয়ার হতাশায়। তবে দ্বিতীয় সেশনে আর সেই ভুল করেনি বাংলাদেশ দল। মাঠের আম্পায়ার নটআউটের সিদ্ধান্ত জানালেও, রিভিউ নিয়ে কেগান পিটারসেনকে সাজঘরে পাঠিয়েছে টাইগাররা।

তাইজুল ইসলামের করা ইনিংসের ৫১তম ওভারের তৃতীয় বল এগিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন কেগান। বল তার ব্যাট ফাঁকি দিয়ে আঘাত হানে সামনের প্যাডে। কিন্তু জোরালো আবেদন করেও আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত পক্ষে পায়নি বাংলাদেশ।

বেশ কিছুক্ষণ চিন্তা করে রিভিউ নেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। রিপ্লে’তে দেখা যায়, বল আঘাত হানতো সোজা মিডল স্ট্যাম্পে। তাই নিজের সিদ্ধান্ত বদলাতে বাধ্য হন মাঠের আম্পায়ার আলাহুদেন পালেকার। আউট হওয়ার আগে ৬৪ রান করেন কেগান।

আবারও যেনো সেই প্রথম টেস্টের পুনরাবৃত্তি। বাংলাদেশের বোলার-ফিল্ডারদের আবেদনে আঙুল না তোলার পণ করেই যেনো নেমেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার দুই আম্পায়ার মারাইস এরাসমাস ও আলাহুদেন পালেকার। অগত্যা রিভিউ-ই ভরসা।

অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে
উইকেট পাওয়ার পর তাইজুল ইসলাম

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের প্রথম দিনেই দুইবার রিভিউ নিয়ে উইকেট আদায় করতে হলো বাংলাদেশকে। দুইবারই বোলার তাইজুল ইসলাম। প্রথমবার কেগান পিটারসেনকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলার পর এবার রায়ান রিকেলটনকে করেছেন ক্যাচ আউট।

তাইজুলের করা ইনিংসের ৮২তম ওভারের তৃতীয় বলে রিভার্স সুইপ করেছিলেন রিকেলটন। বল তার গ্লাভসে লেগে চলে যায় প্রথম স্লিপে দাঁড়ানো ইয়াসির আলি রাব্বির হাতে। কিন্তু তাইজুল-ইয়াসিরের জোরালো আবেদন নাকচ করে দেন এরাসমাস।

সঙ্গে সঙ্গে রিভিউয়ের জন্য অধিনায়ক মুমিনুল হককে তাড়া দেন ইয়াসির-তাইজুলরা। মুমিনুলও রিভিউ নিতে ভুল করেননি। রিপ্লে দেখে রিকেলটনকে আউট দিতে বাধ্য হন এরাসমাস। সাজঘরে ফেরার আগে ৪২ রান করেন এ বাঁহাতি ব্যাটার।

চা পানের বিরতির আগে ৩ উইকেট হারানোর পর থিতু হয়ে গিয়েছিলেন টেম্বা বাভুমা ও রায়ান রিকেলটন। দুজনের ৩১ ওভারের জুটিতে স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ৮৭ রান। মনে হচ্ছিল, এ জুটিতেই দিন শেষ করে দেবে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা।

তবে পোর্ট এলিজাবেথে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনে তা হতে দেননি তাইজুল ইসলাম ও সৈয়দ খালেদ আহমেদ। দিনের শেষ ভাগে অল্প সময়ের ব্যবধানে দুই সেট ব্যাটারকে সাজঘরে পাঠিয়ে বাংলাদেশে স্বস্তি ফিরিয়েছেন তাইজুল-খালেদ।

দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিন শেষে খালেদ এবং তাইজুলের কল্যাণে সমতায় দিন শেষ করলো বাংলাদেশ। পোর্ট এলিবেথের

 

আরও পড়ুন:

“অবশেষে কিছুটা স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরে”-এ 3-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন