কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক?

কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক? : হার্দিক পান্ডিয়া, ভারতীয় ক্রিকেট দলের এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তবে, চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের বাকি ২টি টি টোয়েন্টিতে অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করবেন হার্দিক। এখন, মনে প্রশ্ন আসতেই পারে ” কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক?”

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে নয়, সামনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করেছে ভারত। যেভাবে আইপিএলজয়ী গুজরাট টাইটান্সের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়ার কাঁধে তুলে দেয়া হয়েছে নেতৃত্বের ভারত। সে সেঙ্গ ঘোষণা করা হয়েছে ১৭ সদস্যের ভারতীয় দল। আইপিএলে গুজরাট টাইটান্সকে নেতৃত্ব দিয়ে চ্যাম্পিয়ন করার পুরস্কার পেলেন হার্দিক।

বুধবার আয়ারল্যান্ড সফরের জন্য ১৭ জনের দল ঘোষণা করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজে দুরন্ত ছন্দে থাকা পেসার ভূবনেশ্বর কুমারকে করা হয়েছে হার্দিকের সহকারী।

হার্দিক, ভূবনেশ্বর ছাড়াও আয়ারল্যান্ড সফরের দলে রয়েছেন ইশান কিশান, রুতুরাজ গায়কোয়াড়, সাঞ্জু স্যামসন, সুর্যকুমার যাদব, বেঙ্কটেশ আয়ার, দিপক হুদা, রাহুল ত্রিপাঠি, দিনেশ কার্তিক, ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল, অক্ষর প্যাটেল, রবি বিষণোই, হারশাল প্যাটেল, আভেশ খান, উমরান মালিক এবং আর্শদিপ সিংহ। কোচ হিসেবে যাবেন ভিভিএস লক্ষ্মণ। আয়ারল্যান্ডের পরই রয়েছে ইংল্যান্ড সফর।

বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, রিশাভ পান্ত, লোকেশ রাহুলদের নিয়ে কোচ রাহুল দ্রাবিড় চলে যাবেন ইংল্যান্ডে। সেখানে তারা গত বছরের বাকি থাকা পঞ্চম টেস্টের জন্য প্রস্তুতি নেবেন। সে কারণেই মূলত আয়ারল্যান্ড সফরে ভারতীয় দলের নিয়মিত প্রথম একাদশের ব্যাটার এবং বোলারদের পাওয়া যাচ্ছে না। সিনিয়র ক্রিকেটারদের অনুপস্থিতিতে হার্দিককে নেতৃত্বের দায়িত্ব দিলেন জাতীয় নির্বাচকরা।

কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক?
২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে হার্দিক পান্ডিয়া

[ কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক? ]

আইপিএলে ভাল পারফরম্যান্সের জন্য দীর্ঘদিন পর ভারতীয় দলে ডাক পেলেন সাঞ্জু স্যামসন। প্রথমবার ভারতীয় দলে ডাক পেয়েছেন রাহুল ত্রিপাঠি। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএলে ভাল খেলেছেন এই তরুণ অলরাউন্ডারও। মূলত আইপিএলে সফল তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়েই আয়ারল্যান্ড সফরের দল বেছে নিয়েছেন ভারতীয় নির্বাচকরা। আইপিএলে গুজরাটকে সাফল্যের সঙ্গে নেতৃত্ব দিয়েছেন হার্দিক।

তার নেতৃত্বের প্রশংসা করেছেন সাবেক ক্রিকেটারদের অনেকেই। তেমন তারকা খচিত দল পাননি। তাও ফ্র্যাঞ্চাইজিকে প্রথমবার খেলেতে এসেই আইপিএলেই চ্যাম্পিয়ন করেছেন। অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের পাশাপাশি দুরন্ত নেতৃত্বও দিয়েছেন হার্দিক। দলকে এক সুতোয় বেঁধে রাখেন সাফল্যের সঙ্গে।

এবারের আইপিএল বদোদরার অলরাউন্ডারকে আবিষ্কার করেছে। সে সাফল্যেরই সুবাদেই তাকে আয়ারল্যান্ড সফরের নেতৃত্ব দিয়েছেন জাতীয় নির্বাচকরা। আয়ারল্যান্ড সফরে দু’টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে ভারত। ম্যাচ দু’টি হবে আগামী ২৬ এবং ২৮ জুন।

১৯৯৩ সালের ১১ অক্টোবর গুজরাতের সুরাটে জন্মগ্রহণ করেন হার্দিক পাণ্ড্য। তার বাবা হিমাংশু পাণ্ড্য সেই শহরে একটি ছোটো কার ফাইনান্স ব্যবসা চালাতেন। হার্দিকের যখন পাঁচ বছর বয়স তখন তিনি তার দুই ছেলেকে (হার্দিক ও ক্রুনাল) ক্রিকেটে ভালোভাবে প্রশিক্ষিত করে তোলার জন্য সেই ব্যবসা গুটিয়ে চলে আসেন শহরে। সেখানে তিনি তার ছেলেদের ভর্তি করে দেন কিরণ মোরের ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে।

কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক?
২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে হার্দিক

 আর্থিকভাবে খুব একটা সচ্ছল না হওয়ায় পাণ্ড্য পরিবার গোরওয়া অঞ্চলে একটি ভাড়া বাড়িতে থাকতেন এবং দুই ভাই একটি ব্যবহৃত গাড়িতে করে ক্রিকেট মাঠে খেলতে যেতেন। হার্দিক এমকে হাই স্কুলে নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেন এবং তারপর ক্রিকেটের প্রতি মনোনিবেশ করার জন্য লেখাপড়ায় ইতি টানেন। জুনিয়র-স্তরের ক্রিকেটে হার্দিক দ্রুত উন্নতি লাভ করতে থাকেন।

কুণাল বলেছিলেন, ক্লাব ক্রিকেটে হার্দিক একা-হাতেই অনেকগুলি ম্যাচ জিতেছিলেন।দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস পত্রিকায় দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে হার্দিক স্বীকার করেছিলেন যে, তার “আচরণগত সমস্যা”র জন্যই তাঁকে রাজ্যের বয়সভিত্তিক দলগুলি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল। সেই সঙ্গে তিনি এও বলেন যে, তিনি ছিলেন “শুধু একজন অভিব্যক্তিপূর্ণ বালক” এবং “নিজের আবেগকে লুকাতে পারতেন না”।হিমাংশু পাণ্ড্য বলেছিলেন, ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত হার্দিক ছিলেন একজন লেগ স্পিনার।

তারপর তিনি বরোদা দলের তদনীন্তন কোচ সনৎ কুমারের পীড়াপীড়িতে ফাস্ট বোলিং শুরু করেন।২০১৩ সাল ইউসুফ পাঠান-এর নেতৃত্বে বরোদা ক্রিকেট দলের হয়ে ক্রিকেট জীবনে অভিষেক করেন। ২০১৩-১৪ মরসুমে বরোদা দলের সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি জয়ে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করেছিলেন। ২০১৫ আইপিএল এ প্রথমবার খেলার সুযোগ হয় হার্দিকের।

আইপিএল নিলামে ভিত্তি মূল্য ১০ লক্ষ টাকায় তাকে কেনে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স । উমেশ যাদব,সুনীল নারিন ও আন্দ্রে রাসেল এর মতো বোলিং লাইনআপ সমন্বিত কলকাতা নাইট রাইডার্সএর বিরুদ্ধে মুম্বাইতে ৩১ বলে ৬১ রান করে দলকে জেতাতে বিশেষভাবে সাহায্য করেন। সেই ট্যুর্নামেন্টে শীর্ষ চার দলের মধ্যে স্থান পাওয়ার জন্য মুম্বই ইন্ডিয়ানসের কাছে ম্যাচটি জেতা খুবই জরুরি ছিল।

কেমন অধিনায়ক হবেন হার্দিক?
আইপিএল ট্রফি হাতে হার্দিক

হার্দিকও সেই ট্যুর্নামেন্টে দ্বিতীয় ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার পেয়েছিলেন। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে বরোদা ক্রিকেট দলের হয়ে অপরাজিত ৮৬ সালের ইনিংস খেলেন হার্দিক। সেই ইনিংসে তিনি আটটি ছয় মেরেছিলেন। বরোদা ক্রিকেট দলও সেই ম্যাচে বিদর্ভ ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে ছয় উইকেটে জয় লাভ করে। এরপর, দীর্ঘদিন ক্রিকেট মাঠে ভারতীয় দলের প্রধান অলরাউন্ডার হয়ে খেলছিলেন। তবে, ২০২১ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাজে পারফর্মেন্স এবং খারাপ ফর্মের কারণে দল থেকে বাদ পড়তে হয় হার্দিককে।  কিভাবে হেরা যাওয়া বাজি জিততে হয়, তাই যেনো সকলকে শিখিয়ে দিলেন হার্দিক।

তবে, সম্প্রতি আইপিএল ২০২২ এ সবচেয়ে লো বাজেটের দল গুজরাট টাইটান্সের অধিনায়ক হয়ে সে দলকে শিরোপা জেতান হার্দিক। এ টুর্নামেন্টে ব্যাট এবং বল উভয়ে হাতেই দলকে চ্যাম্পিয়ন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন হার্দিক।

আরও পড়ুন:

মন্তব্য করুন